নরসিংদীতে প্রতারণা ও মুক্তিপণ আদায়কারী চক্রের ৪ সদস্য গ্রেফতার

0
55

জেলা গোয়েন্দা শাখা নরসিংদী কর্তৃক অভিনব প্রতারণা ও মুক্তিপণ আদায়কারী চক্রের ৪ সদস্য গ্রেফতার

জনৈক ইরফানুল হক (২৭) ব্রাহ্মণবাড়ীয়া হতে বিক্রয় ডটকমের মাধ্যমে বিজ্ঞাপন দেয়া একটি মোবাইল ফোন কিনতে ইং ১৯/০৫/২০২০ তারিখ সকাল ১১:৩০ ঘটিকায় নরসিংদীর পাঁচদোনা মোড়ে রাজধানী হোটেলের সামনে আসে।সেখানে মোবাইল দেখানোর কথা বলিয়া একজন অজ্ঞাতনামা লোক (যার মোবাইল নম্বর বিক্রয় ডটকমের বিজ্ঞাপনে দেওয়া ছিল) সহ ৩টি মোটরসাইকেলে করে ৬/৭ জন লোক এসে ইরফানুল হককে অভিনব কৌশলে প্রতারণাপূর্বক মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে আটক করতঃ তার সাথে থাকা ৯,০০০/= টাকা ছিনাইয়া নেয়।ইরফানুল হককে মারধরের ভয় দেখিয়ে বাড়ী থেকে আরো পঞ্চাশ হাজার টাকা আনার জন্যে মুক্তিপন দাবী করে এবং ভিকটিম কৌশল অবলম্বন করে বাড়ী থেকে বিকাশে ৫,০০০/= টাকা আনায় এবং অপহরণকারীদের একটা বিকাশ নম্বরে সেন্ডমানি করে।পরবর্তীতে ইরফানুল হক মুক্তি পায়।

মঙ্গলবার (২৩ জুন ২০২০ খ্রিঃ) ইরফানুল হক নরসিংদী এসে পুলিশ সুপার নরসিংদীকে অবগত করিলে জেলা গোয়েন্দা শাখা নরসিংদীর চৌকস অফিসার এসআই জাকারিয়া আলম টিমসহ ভিকটিমকে নিয়ে অভিযান পরিচালনা করে। তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় আসামীদের অবস্থান সনাক্তপূর্বক ভিকটিমের সনাক্ত মতে অভিনব প্রতারণা ও মুক্তিপণ আদায়কারী চক্রের ৪ সদস্য (১)রোহান আহম্মদ খান(২৩),পিতা-আইউবআলীসাং-
যুগিরটেক,(২) মোঃমোখসেদুল মিয়া(২১),পিতা-ইসরাফিল,
সাং-বিরামপুর,(৩) মোঃ মাসুদ মিয়া(২৪),পিতা-আঃ রহিম,
সাং-কান্দাপাড়া,সর্বথানা-মাধবদী,(৪) মোঃ মারুফ মিয়া (২১),
পিতা-মোশারফ মিয়া,সাং-বাগহাটা,থানা-নরসিংদী,সর্বজেলা-
নরসিংদীদের গ্রেফতার করেন।

আসামীরা সংঘবদ্ধভাবে অভিনব প্রক্রিয়ায় প্রতারণা করিয়া অপহরণ করতঃ মুক্তিপণ আদায় করে আসতেছিল।

গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে ভিকটিম ইরফানুল হক বাদী হয়ে মাধবদী থানায় এজাহার দায়ের করেছেন

রিপ্লাই লিখতে চাই