পলাশে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে খেটে খাওয়া মানুষের পাশে প্রবাসী মশিউর রহমান খন্দকার

0
171
পলাশে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বিপর্যস্ত শ্রমিক খেটে খাওয়া মানুষের পাশে দাঁড়ালেন প্রবাসী মশিউর রহমান খন্দকার।

মাসুম ভুইয়া,নরসিংদী প্রতিনিধিঃ

মহামারী করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সরকারের নিদের্শনা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে নিজ বাড়ীতে অসহায় হয়ে পড়েছে কর্মহীন ও খেটে খাওয়া মানুষ। বিপর্যস্ত শ্রমিক, অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ালেন বিশিষ্ট সমাজ সেবক বাংলাদেশ সিঙ্গাপুর অ্যাগ্রো ফার্ম( বি. এস.এ এফ), বাংলাদেশ বয়েজ সিঙ্গাপুর (বি.বি.এস) মোহাম্মাদ মশিউর রহমান খন্দকার। তাঁদের ব্যক্তিগত উদ্যোগে পলাশ উপজেলার গজারিয়া ইউনিয়নের দরিচর, নোয়াকান্দা,গজারিয়া, পারশর্বতি শিবপুর উপজেলার কারাচরের ২ শত ৩২ ঘরবন্দী পরিবারের মাঝে বধবার (৮ এপ্রিল) বাড়ী বাড়ী গিয়ে প্রতি পরিবারে মাঝে ৫ কেজি চাল,১কেজি ডাল,১কেজি তেল, ২ কেজি আলু, ১ কেজি লবণ, ৫০০ গ্রাম পিয়াজ ও ১ট সাবানসহ খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। এর আগে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন হাজী নূরুল ইসলাম খন্দকার । এসময় সমাজ সেবক বেলায়েত হোসেন (আঃ)পরিসংখ্যান অফিসার, গজারিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলামসহ আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী, গ্রামপুলিশ উপস্থিত ছিলেন। আমিনুল ইসলাম বলেন, এই সংকটময় মুহুর্তে সাধারণ মানুষের মাঝে দাঁড়াতে পেরে মোহাম্মাদ মশিউর রহমান খন্দকার নিজেকে গর্ববোধ মনে করছে। সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশে দাঁড়াতে সমাজের সকল বিত্তবানদের স্ব-স্ব অবস্থান থেকে এগিয়ে আসতে হবে। বাংলাদেশ সিঙ্গাপুর অ্যাগ্রো ফার্ম( বি. এস.এ এফ), বাংলাদেশ বয়েজ সিঙ্গাপুর (বি.বি.এস) চেয়ারম্যান মোহাম্মাদ মশিউর রহমান খন্দকারের ব্যক্তিগত এই উদ্যোগে বিপর্যস্ত শ্রমিক, সুবিধাবঞ্চিত, গরীব ও অসহায় মানুষদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত থাকবে বলেও জানান।

রিপ্লাই লিখতে চাই